রাত ৩টায় ক্লাস নিলেন ভিসি কলিমউল্লাহ

মেয়াদের শেষ সময়ে রাত ৩টায় ক্লাস নিয়ে ফের বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) ভিসি অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ। বৃহস্পতিবার (১০ জুন ২০২১ইং) রাত ৩টা ২০মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের জেন্ডার এন্ড ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ

বিভাগের ২০১৯-২০ইং শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষ দ্বিতীয় সেমিস্টারের ‘পলিটিক্যাল থট’ কোর্সের ক্লাস নেন তিনি। এ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেতরে এবং বাইরে চলছে সমালোচনার ঝড়।

জানা যায়, বুধবার রাত সাড়ে ৮টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের জেন্ডার এন্ড ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের ২০১৯-২০ইং শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষ দ্বিতীয় সেমিস্টারের ‘পলিটিক্যাল থট’ (কোর্স কোড- ১২০২) কোর্সের ক্লাস রাত ৩টায় নেয়ার কথা জানান ভিসি কলিমউল্লাহ।

এরপর অনলাইন প্লাটফর্ম গুগল মিট-এ রাত ৩টা ২০মিনিটে ক্লাস শুরু হয়। প্রায় ৩৫মিনিট চলা ক্লাসের শুরুতে প্রায় ২৮ জনের মতো যুক্ত থাকতে পারলেও শেষ পর্যন্ত যুক্ত থাকার সংখ্যা দাঁড়ায় প্রায় ১২ জনের মতো। রাত প্রায় ৩টা ৫৫ মিনিটে ক্লাস শেষ করেন তিনি।

এদিকে রাত প্রায় সাড়ে তিনটায় ক্লাস নেয়ার ঘটনায় ক্যাম্পাস এবং ক্যাম্পাসের বাইরে চলছে ব্যাপক সমালোচনা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেকেই। শুধু তাই নয়, এর আগেও মধ্য রাতে ক্লাস নিয়ে সমালোচনায় এসেছিলেন ভিসি কলিমউল্লাহ। পরে তীব্র সমালোচনার মুখে রাতে ক্লাস নেয়া বন্ধ করেন তিনি।

অভিযোগ রয়েছে, বিশ্ববদ্যিালয়ের বিভিন্ন বিভাগের প্রায় অর্ধশতাধিক কোর্সের ক্লাস নিয়েছেন তিনি। এসব কোর্সের সর্বোচ্চ এক থেকে দুইটি নামে মাত্র ক্লাস নেন তিনি। আর পরীক্ষার খাতা কর্মচারী দিয়ে মূল্যায়ন ও পরীক্ষায় অনুপস্থিত শিক্ষার্থীকেও মার্কস দেয়ার অভিযোগ রয়েছে কলিমউল্লাহর বিরুদ্ধে। শুধু তাই নয়, এসব কোর্স বাবদ মোট অংকের পারিতোষিকও নেয়ার অভিযোগ রয়েছে।

অধিকার সুরক্ষা পরিষদের আহবায়ক ও ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ড. মতিউর রহমান বলেন, এটি কোন সুস্থ মানুষের কাজ হতে পারে না। তার আসলে মানসিক চিকিৎসা প্রয়োজন। তার যারা কাছের লোকজন রয়েছে তাদের উচিৎ তার (ভিসি) মানসিক চিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহণ করা।

এ ব্যাপারে জানতে অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহর মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি রিসিভ করেনি।

প্রসঙ্গত, রাষ্ট্রপতির নিয়োগাদেশ অনুযায়ী ভিসি অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহর চার বছর মেয়াদ পূর্ণ হয় গত ৩১শে মে। তবে, ড. কলিমউল্লাহর দাবি, তিনি যোগদান করেছেন ১৪ জনু ২০১৭ ইং তারিখে এবং মেয়াদ শেষ হবে ১৩ জুন ২০২১ইং তারিখে। মেয়াদ শেষ নিয়ে ধোঁয়াশা না কাটতেই গতকাল বুধবার (৯ জুন ২০২১) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মাহমুদুল আলম স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) ট্রেজারার ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের অধ্যাপক ড. হাসিবুর রশিদকে বিশ্ববিদ্যালয়টির ৫ম ভিসি হিসেবে নিয়োগ প্রদান করা হয়। যা ১৪ই জুন ২০২১ই তারিখ হতে কার্যকর হবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*